রাজশাহীতে রাজপাড়া থানার ওসির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

হাসান মৃধা

0
48
রাজশাহীতে

রাজশাহীতে ভুক্তভোগী পরিবারের মামলা না নিয়ে, উল্টো হুমকি দেওয়ার অভিযোগ রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে । ষাটউর্দ্ধ বৃদ্ধা মহিলার সাথে অশোভন আচারণ করে থানা থেকে রেব করার অভিযোগ দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার। আজ ১৮ জুলাই বিকাল ৬:৩০ মিনিটে রাজশাহী শিরোইলে অবস্থিত রাজশাহী মডেল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এমন অভিযোগ করেন ভুক্তিভোগী পরিবারের নুরজাহান (৬০)।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ১৬ জুলাই শুক্রবার রাত ৯ টায় রাজপাড়া থানাধীন নিমতলা মোড়ে বার্গার ক্রয়কে কেন্দ্র করে কথা-কাটাকাটি হয়। বার্গার বিক্রেতা তাইজুলের ছেলে নাঈমের সাথে কথা কাটাকাটির পর নুরজাহান বেওয়ার ছেলে ইসমাইল হোসেন ছোটন ও তার দুই বন্ধু মানিক ও ডিকেন নিজ নিজ বাসায় চলে যায়।
পরে তাইজুল তার ছেলে নাঈম সহ আরো ৮-১০ জনের সঙ্ঘবদ্ধ দল ছোটনের বাসায় হামলা চালায়। হামলায় গুরুতরভাবে আহত হয় ছোটন। পরে ছোট ভাই ছোটনকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে আহত হয় অন্যভাই স্বপন, লিটন, রতন।
সেইদিনই রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ছোটনকে। চিকিৎসা নিয়ে ঐ দিন রাতেই মামলা করতে রাজপাড়া থানায় গেলে মামলা নেয়নি ওসি মাজহারুল ইসলাম। পরে অর্থের বিনিময়ে তাইজুলের পক্ষে মামলা নেন ওসি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়- ভুক্তভোগী পরিবার নুরজাহান বেওয়া (৬০) (রবিবার) দুপুরে রাজপাড়া থানায় ছেলের বিচার চেয়ে মামলা করতে গেলে ওসি মামলা না নিয়ে উলটো অশোভন আচারণ করেন। তুই তুকারী ভাষা ব্যবহার করে থানা থেকে বের করে দেন ওসি। সে সময় একজন সাংবাদিক সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এমনকি সেই সাংবাদিকের সাথেও অশোভন আচারণ করেন। হুমকি দেন সাংবাদিককে।

উল্লেখ্য যে, তাইজুল, নাইম, সাদ্দাম, টগর, ডিপলু, রকি দ্বয় এলাকার চিহৃত চাঁদাবাজ। ভুক্তভোগী পরিবারকে এলাকা ছাড়া করতে এই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে তাদের বিরুদ্ধে নানা কূটকৌশল অবলম্বন করে আসছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়।

এ বিষয়ে রাজপাড়া থানার ওসি মাজহারুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তারা এজাহারভুক্ত আসামি, আমি কিভাবে তাদের মামলা নিবো। এছাড়াও তিনি বৃদ্ধ মহিলা ও সাংবাদিকের সাথে অশোভন আচরনের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে