জনপ্রিয়তায় শীর্ষে শ্যামপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী বশির

সজল মাহমুদ চাঁপাই

0
83

আগামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে পুরো ইউনিয়ন ছেয়ে গেছে পোস্টার, ফেস্টুন আর ব্যানারে। আর এবারের নির্বাচনে আবারো বিজয়ের আশাবাদি শ্যামপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য (মেম্বার) পদপ্রার্থী বশির আহমেদ। তিনি অত্র ওয়ার্ডবাসীর কাছে দোয়া ও তাঁর ফুটবল প্রতীকে ভোট প্রার্থণা করেছেন। বশির আহমেদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়ন শাখা আওয়ামীলীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক।

গত ২০১১ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শ্যামপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য (মেম্বার) নির্বাচিত হোন। নির্বাচিত হয়ে তিনি ওই সময় তাঁর নির্বাচনী এলাকার রাস্তা-ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। শুধু তাই নয়, সে সময়ের প্রকল্প একটি বাড়ি, একটি খামার, বয়স্ক ভাতা, বিধাব ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, মাতৃত্বকালিন ভাতা সেবায় ওয়ার্ডেও প্রায় ২ হাজার মানুষকে সেবা দিয়েছেন। এছাড়া তিনি সমাজের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকের পাশে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন সময় স্বেচ্ছাসেবী কাজ করেছেন। পাশাপাশি প্রান্তিক জনগোষ্ঠি উন্নয়ন, ৬৫০জনকে ১০ টাকা কেজি দরের চালের কার্ড, হতদরিদ্র ১০জনকে ভ্যান, অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন প্রদান, সুপেয় পানির জন্য ২০টি টিউবওয়েল স্থাপন, এফ.এল,এস প্রকল্পের মাধ্যমে হিন্দু সম্প্রদায়ীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ৬৩জনকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

বশির আহমেদ বলেন, আমি নির্বাচিত না হয়েও করোনাকালিন সময়ে ওয়ার্ডে ৩০০টি পরিবারকে ত্রাণ সামগ্রী প্রদান করেছি। তাছাড়া বিভিন্ন সময় স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় শিক্ষা উপরকরণ ও চেয়ার-বেঞ্চ প্রদান করেছি। আর আমাকে আবারো সাধারণ সদস্য (মেম্বার) হতে জনগণই উৎসাহ দিয়েছেন। তাই জনগণের কথা চিন্তা করে এবারও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। এই নির্বাচনে আমি ফুটবল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে লড়াই করছি। আমি আবারও আশাবাদি আগামী ২৮ নভেম্বর জনগণের ভোটে নির্বাচিত হবো ইনশাআল্লাহ। আমি নির্বাচিত হলে অত্র ওয়ার্ডের যে সব উন্নয়ন অসমাপ্ত রয়েছে আমি সে সব উন্নয়ন করতে যথাসাধ্য চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে